Amar Pujo Toronto Blog Amar Pujo Toronto Blog Amar Pujo Toronto Blog Amar Pujo Toronto Blog

রিমি'র Easter Egg Hunt - Anuradha Sen

রিমি শুনতে পেল মা তাকে ডাকছে, “রিমি তাড়াতাড়ি রেডি হয়ে নাও, আজ আমরা মলিমাসির বাড়ি easter egg hunt করতে যাবো।”

“সেটা কি মা?”

“একটা মজার খেলা, রিমি। অনেক রঙের ডিম লুকোনো থাকবে, আর সব বাচ্চারা সেগুলো খুঁজবে। খুব মজা হবে দেখো”, বলল মা।

রিমির মনে হল এগুলো নিশ্চই হাট্টিমাটিম-এর ডিম। যেটা সে অনেকদিন ধরেই খুঁজছে। যখন ঠামি’র কাছে প্রথম শুনেছিল কবিতাটা - “হাট্টিমাটিম টিম টিম তারা মাঠে পাড়ে ডিম, তাদের খাঁড়া দুটো শিং” আর ঠামি তাকে বলেছিল যে একদিন সে দেখতে পাবে সেই special ডিম। ঠামির বাগানে নানা রঙের ফুল আর গাছপালা, তার মধ্যে রিমি সুযোগ পেলেই ডিম খুঁজত। কিন্তু একদিন তারা সোনারপুরের বাড়ি ছেড়ে প্লেনে করে ফ্লোরিডা চলে আসলো। আর রিমির ডিম খোঁজা বন্ধ হয়ে গেল। আজ হয়তো মলিমাসির বাড়ি সেই হাট্টিমাটিম এর ডিম দেখতে পাবে। রিমি তাড়াতাড়ি করে মা’র কাছ থেকে লাল জামাটা পরে ready হয়ে নিল।

 

 রিমি আর রিমির মা, বাবা সবে একমাস হল ফ্লোরিডা তে এসেছে। তাদের গাড়ি নেই, তাই আরেকজন কাকু-কাকিমা এসেছে তাদের গাড়ি করে নিয়ে যাবে বলে। রিমি ফিসফিস করে মা কে জিজ্ঞেস করল, “মা আমরা কি আজ হাট্টিমাটিম এর ডিম খুঁজতে যাচ্ছি?” মা কোন উত্তর না দিয়ে কাকিমার সাথে গল্প করতে লাগল। মলিমাসির বাড়ি পৌঁছে রিমি দেখে নানা রঙের বেলুন আর কাগজ দিয়ে সারা বাড়ি সাজানো। অনেক কাকু, কাকিমা সবাই চেঁচিয়ে-চেঁচিয়ে কথা বলছে, হাসছে। ছোট, বড়ো বাচ্চারা সব দৌড়ো-দৌড়ি করছে। রিমি জড়ো-সড়ো হয়ে মা’র গা ঘেষে দাঁড়িয়ে রইল। মা কয়েকবার বলল “যাও ওদের সাথে খেলা করো গিয়ে”, কিন্তু রিমি কিছুতেই গেল না। সকলের সামনে মাকে সে বলতে পারছে না যে ওদের মতো ইংরিজি বলতে পারে না সে। কিছুক্ষণ বাদে মলিমাসি সব বাচ্চাদের ডাক দিল, “Come on everyone we will hunt for easter eggs in the garden”, আর সবাইকে ছোট ছোট basket দিল। মা রিমি কে বুঝিয়ে দিল যে তাকে সব জায়গা খুঁজে দেখতে হবে আর যে ডিমটা সে পাবে, সেটা তার। রিমি মজা পেল কিন্তু ভয়-ও পেল। সে কি পারবে? সে তো ইংরিজি জানে না, কাউকে চেনে না! আবার মা’র শাড়ি খামচে ধরল। মলিমাসি হেসে তাকে হাত ধরে নিয়ে গেলো বাগানে, আর তার মেয়ে তানিয়াকে ডেকে বলল “রিমি কে help করো”। রিমি তানিয়া’র পেছন পেছন গেল, কিন্তু খানিক্ষন বাদে আর তাকে দেখতে পেলো না। অন্য বাচ্চারা হই-হল্লা করতে করতে নানা রঙের ডিম পাচ্ছে গাছের তলা থেকে, পাতা’র মাঝে, টবের ভেতর, আর রিমি তাদের দেখতে থাকল আর আপনমনে ঘুরে বেড়াতে থাকল। হাট্টিমাটিম-এর ডিম আর তার পাওয়া হলো না। একটুপরে সবাই ভেতরে চলে গেল। Easter Egg hunt শেষ হয়ে গেছে এখন সবাই lunch খাবে। রিমি’র মুখ-চুন, সে একটা- ও ডিম পায় নি। গলার কাছটা-তে কান্না আটকে আছে। মা তার দিকে তাকিয়ে কিছু বলতে যাচ্ছিল, এমন সময় মলি মাসি বলল, “এ মা, রিমি, তোমার basket খালি কেন?” দাঁড়াও, তোমাকে আমি দিচ্ছি,” বলে ৫-টি রঙ্গিন ডিম এনে দিল। রিমি দেখল ওগুলো plastic-এর, ভেতরে chocolate ভরা। রিমি’র মনটা খুশিতে ভরে উঠল।

 তারপর খাওয়া-দাওয়া হল, সবাই অনেক আড্ডা দিল, বাচ্চারা খেলতে লাগলো। রিমি’র আর ততটা খারাপ লাগছে না ততক্ষ্ণনে। এবার বাড়ি ফেরার পালা। আবার ওই কাকু-কাকিমা’র গাড়িতে উঠে বসল রিমি, আর একটুপরে মা’র কোলে ঘুমিয়ে পরল। স্বপ্ন দেখতে থাকলো চার বছরের ছোট্ট রিমি - ঠামি আর দাদাই’র সাথে  সোনারপুরের বাড়ির বাগানে সে দৌড়ে বেড়াচ্ছে আর নানা রঙের ফুলের ভেতর থেকে হাট্টিমাটিম এর ডিম পেয়ে যাচ্ছে। ঠামি তাকে কোলে বসিয়ে গল্প বলছে আর দাদাই এত্ত-বড়ো একটা মাছ ধরে নিয়ে এসেছে পুকুর থেকে আর ঠামিকে বলছে, “এটি রিমি-মা কে ভেজে দাও”। ঘুমের মধ্যে রিমি’র বুকটা হু-হুকরে উঠলো দাদাই আর ঠামি’র জন্য। রিমি’র চোখের কোনা দিয়ে জল গড়িয়ে পড়তে লাগল, আর তার মা সেটা আলতো করে মুছিয়ে দিল।

 

How do I describe myself? Opinionated, impatient, pragmatic, fascinated with science, enthralled with nature, passionate about literature, obsessed with social causes. I am at my best when left alone with a book, a dog, a hot cup of mocha-java and a plate of warm danish.

Comments  

 
#4 Parames Misra 2014-10-21 20:11
Wow!!! So nicely written, Mou. I didn't know about your talent in writing. Thanks to Amar Pujo...
Quote
 
 
#3 Amit 2014-10-16 09:31
darun likhechho Mou di..
Quote
 
 
#2 Sunit Datta 2014-10-01 20:00
Very nice!
Quote
 
 
#1 Bidisha 2014-10-01 16:47
Khub bhalo laglo pore moudi.. Ektu mon kharap o hoye galo
Quote
 

Add comment

Security code
Refresh

Sunday the 21st. Amar Pujo Toronto | Home | Joomla 3 Templates Joomlaskins